সর্বশেষ সংবাদ
  • Prophet Muhammad-হুযুরে পাক (সাঃ)-এর পোশাক- পরিচ্ছদ প্রসঙ্গ

    Prophet Muhammad-হুযুরে পাক (সাঃ)-এর পোশাক- পরিচ্ছদ প্রসঙ্গ:


    Prophet Muhammad clothes are clean


    হুযুরে পাক (সাঃ)-এর পোশাক- পরিচ্ছদ প্রসঙ্গ:
    হুযুরে পাক (সাঃ) পোশাক- পরিচ্ছদের ক্ষেত্রে কোন বাধ্য-বাধকতার নীতি অবলম্বন করেন নাই। যখন যাহা হইত, তিনি তখন তাহাই পরিধান করিতেন। খুব উন্নত ধরনের কিংবা বিশেষ শ্রেণীর পোষাকের তিনি অপেক্ষা করিতেন না। হুযুরে পাক (সাঃ) সচরাচর চাদর ইযারও ব্যবহার করিতেন । উহা সাধারণতঃ মোটা কাপড়েরই হইত। কখনও কখনও তিনি পশমী কাপড়ও ব্যবহার করিতেন ।

    আনাস ইবনে মালেক (রাঃ) বলেন, হুযুরে পাক (সাঃ) বলেন, হুযুরে পাক (সাঃ) হিবারা (ইয়ামেনের এক প্রকার চাদর) একটু বেশি পছন্দ করিতেন । 

    সাহাৰী ইবনে ওমর (রাঃ) বলেন, হযরত রাসূলে করীম এরশাদ করিয়াছেন, মুমিনের গুণাবলির মধ্যে পোশাক-পরিচ্ছদ  পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা এবং অল্পে তুষ্টি আল্লাহর নিকট পছন্দনীয় । 
    হযরত উম্মে সালমা (রাঃ) বলেন, হুরে পাক (সাঃ) যদিও লুঙ্গি ও চাদর পরিধান করিতেন, তবু তিনি জামা-ই বেশী পছন্দ করতেন।

    মোল্লা আলী কারী (রহঃ) বলেন যে, হুযুরে পাক (সাঃ)-এর জামা সূতী বস্ত্রের ছিল, উহা অত্যধিক লম্বা ছিল না এবং উহার আস্তিন ও তত বড় হল না।
    উম্মুল মুমিনীন হযরত আয়েশা (রাঃ) বলেন যে, হুযুরে পাক (সাঃ)-এর জামা, লুঙ্গি, চাদর ও জুতা কখনও একের অধিক থাকিত না।

    হযরত আব্বাস (রাঃ) বলেন যে, হুযুরে পাক (সাঃ)-এর জামা অত্যধিক লম্বা ছিল না এবং তাহার আস্তিন ও ততটা দীর্ঘ ছিল না। হযরত আব্বাস (রাঃ) বর্ণিত অন্য হাদীসে আছে যে, হযুরে পাক (সাঃ) এর জামা পায়ের গিরার উপরেই থাকিত। অন্য হাদীসে বর্ণিত হইয়াছে যে, তাঁহার জামার আস্তিন হাতের কজি পর্যন্ত বিলম্বিত থাকিত। 
    হযরত ওমর (রাঃ) বলেন যে, হুযুরে পাক (সাঃ) এরশাদ করিয়াছেন, যে ব্যক্তি অহঙ্কারবশতঃ পরনের কাপড় মাটিতে ঝুলাইয়া দিয়া চলিবে, আল্লাহতায়ালা তাহার প্রতি রহমতের দৃষ্টিতে তাকাইবেন না। 

    অন্য হাদীসে আবদুল্লাহ ইবনে ওমর (রাঃ) বলেন, হুযুরে পাক এরশাদ করিয়াছেন যে, যে ব্যক্তি অহঙ্কারবশতঃ পরনের কাপড় মাটিতে টানিয়া চলিবে, আল্লাহতায়ালা রোজ কিয়ামতে তাহার দিকে রহমতের নজরে দৃষ্টিপাত করিবেন না। এই বাক্য শুনিয়া শ্ৰেষ্ঠ সাহাবী হযরত আবুবকর (রাঃ) বলিলেন, ইয়া রাসূলাল্লাহ (সাঃ) অসতর্ক অবস্থায় আমার সেলাইবিহীন লুঙ্গির একপাশ ঝুলিয়া পড়ে। তখন হুযুরে পাক (সাঃ) বলিলেন, যাহারা অহঙ্কারবশতঃ ঐরূপ করে, আর আপনি তাহাদের দলভুক্ত হইবেন না ।

    হযরত আবু হোরায়রা (রাঃ) বলেন, হুযুরে পাক (সাঃ) এরশাদ করিয়াছেন, গিরার নীচে যে  ইযার বা কাপড় পরিবে, সে দোযখের আগুনের লেলিহান শিখায় জ্বলিৰে ।

    হযরত আবদুল্লাহ (রাঃ) বলেন, হুযুরে পাক (সাঃ) এরশাদ করিয়াছেন, একদা একব্যক্তি পায়ের নাচে ইযার ঝুলাইয়া পথ চলিতেছিল, এমনি সময় আল্লাহ তাহাকে (যমিনের নীচে) ধসাইয়া দিলেন । রোজকিয়ামত পর্যন্তই সে যমিনের নিম্নতম স্তরের দিকে তলাইয়া যাইতে থাকিবে ।

    হযরত আব্বাস (রাঃ) বলেন, হুযুরে পাক (সাঃ) এরশাদ করিয়াছেন, যে বক্তর নিকট ইযার (বা লুঙ্গি) নাই, সে যেন পায়জামা পরিধান করে আর যাহার নিকট জুতা নাই, সে যেন মোজা ব্যবহার করে | 

    হযরত আয়েশা (রাঃ) ও হযরত আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রাঃ) বলেন, মহানবী (সাঃ) যখন অন্তিম শয্যায় শায়িত ছিলেন, তখন কম্বল দিয়া মুখমণ্ডল ঢাকিয়া রাখিতেন। যখন শ্বাসরোধ হইয়া আসিত, তখন উহা মুখ হইতে সরাইয়া ফেলিতেন এবং ঐ অবস্থায় বলিতেন, ইয়াহুদী ও নাছারাদের উপর আল্লাহর অভিশাপ, তাহারা তাহাদের নবীর কবরকে মসজিদে পরিণত করিয়াছে ।

    হয়রত আর বরদাহ (রাঃ) বলেন, হযরত আয়েশা (রাঃ) এক খানা চাদর ও মোটা কাপড়ের একটা ইযার নিয়া আমাদের কাছে আসিলেন এবং আমাদিগকে লক্ষ্য করিয়া বলিতে লাগিলেন, যখন হুযুরে পাক (সাঃ) ইন্তেকাল করিলেন, তখন এই দুইটি পোশাক তাহার পরিধানে ছিল। হাদীস মারফত অবগত হওয়া যায় যে, হুযুরে পাক (সাঃ) স্বয়ং এবং তাহার সাহাবায় কেরাম সবুজ বর্ণের পোশাক পরিধান করিতেন। 

    আবার হযরত আবুযর গিফারী (রাঃ)-এর এক হাদীস দ্বারা জানা যায় যে, হয়রে পাক (সাঃ) সাদা বর্ণের পোশাক ও ব্যবহার করিতেন ।








    মহানবীর পোশাক,

    নবীজির লাঠি মোবারক,

    নবীজীর পোশাক,

    কালো পোশাক পরা কি জায়েয,

    পোশাক পরিচ্ছদ ইসলামী নীতিমালা,

    নবীজির পোশাক,

    মেয়েদের পোশাক নিয়ে হাদিস,

    পোশাকের সুন্নাত,

আরোও সংবাদ