সর্বশেষ সংবাদ
  • ১৮,৬২১ মেট্রিক টন ভিজিএফ চাল বরাদ্দ, জেলেদের জন্য

    দেশের সামুদ্রিক জলে ২০ শে মে থেকে ২৩ জুলাই ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞার সময় ২০২০-২১ অর্থবছরে সরকার জেলেদের জন্য  ১৬৭২১.৩২ মেট্রিক টন ভিজিএফ চাল বরাদ্দ করেছে। সরকারের মানবিক খাদ্য সহায়তা কর্মসূচির আওতায় দেশের ১৪ টি উপকূলীয় জেলার ৬৬ উপজেলায় ২ ৯৮৫৯৫ টি মাছ ধরা পরিবারকে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।


    এর মাধ্যমে প্রতিটি ফিশিং পরিবার প্রথম পর্বে মে ২০ থেকে 30 জুন মাসে মাসে ৪০ কেজি হারে ৪২ দিনের জন্য মোট ৫৬ কেজি চাল পাবে।


    বুধবার মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকদের পক্ষে এ বিষয়ে অনুমোদনের আদেশ জারি করে।

    নিষেধাজ্ঞার সময় সমুদ্রপথে মাছ ধরা থেকে বিরত থাকা নিবন্ধিত জেলেদের মধ্যে বিতরণ এবং আগামী ১০ জুনের মধ্যে ভিজিএফ চাল নিয়মিত উত্তোলন সম্পন্ন করার এবং অনুদান আদেশে নির্দেশ জারি করা হয়েছে। মঞ্জুরির আদেশেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল যে কার্ডধারক ব্যতীত অন্য কাউকে ভিজিএফ প্রদান করা যাবে না।


    বরাদ্দকৃত উপজেলা হল খুলনা জেলার বটিয়াঘাটা, দাকোপ, পাইকগাছা, কয়রা, ডুমুরিয়া, দিঘলিয়া, রূপশা, বাগেরহাট জেলার মোংলা, মোরেলগঞ্জ ও শরণখোলা, বাঁশখালী, আনোয়ারা, চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই, আনোয়ারা ও মিরসরাই।


     কক্সবাজার জেলার সদর, চকরিয়া, মহেশখালী, উখিয়া, পেকুয়া, কুতুবদিয়া, টেকনাফ এবং রামু, ফেনী জেলার ফুলগাজী, লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি, সদর, নোয়াখালী জেলার হাতিয়া, সদর, সুবর্ণচর ও কোম্পানীগঞ্জ, কমলনগর ও রায়পুর, বারিগঞ্জ , বরিশাল জেলা। 


    সদর ও উজিরপুর, ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর, বরগুনা জেলার সদর, পাথরঘাটা, নাজিরপুর, নেছারাবাদ, কাউখালী ও ইন্দুরকানী,  আমতলী ও তালতলী, পিরোজপুর জেলার সদর, মঠবাড়িয়া, ভান্ডারিয়া,পটুয়াখালী জেলার সদর, কলাপাড়া, বাউফল, গলাচিপা জেলা সদর, বোরহানউদ্দিন, চর ফ্যাশন,তাজুমউদ্দিন,মনপুরা, দৌলতখান, লালমোহন।


    দেশের সামুদ্রিক জলে যথাযথ প্রজনন, উত্পাদন, সামুদ্রিক ফিশারি সম্পদ সংরক্ষণ মৎস্য চাষের জন্য মেরিন ফিশারি অ্যাক্ট, ২০২০ অনুসারে, সরকার ২০ শে মে থেকে ৭৫৫ দিনের জন্য বাংলাদেশের সমুদ্র জলে সমস্ত মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় ১৩ এপ্রিল এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। 

আরোও সংবাদ